হিউস্টনের পাল্টা নিল চীন, চেংদুতে বন্ধ হলো যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস

দৈনিক নতুন বিশ্ববার্তা অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:০৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০

গুপ্তচরবৃত্তি ও দেশের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে নাক গলানোর অভিযোগ তুলে দিন দুই আগে হিউস্টনে চীনা কনস্যুলেট বন্ধ করে দেওয়ার হুকুম দিয়েছিল হোয়াইট হাউস। এর জবাবে চীন জানিয়েছিল, তারা এর জবাব দেবে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে দক্ষিণ–পশ্চিম চীনের চেংদুতে যুক্তরাষ্ট্রের কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বেইজিং।

শুক্রবার সকালে প্রকাশিত এক নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, চেংদুতে যুক্তরাষ্ট্রের কনস্যুলেটের লাইসেন্স বাতিল করা হচ্ছে। সেখানে আর কোনও রকম কাজ চালানো যাবে না। নির্দেশিকায় এও বলা হয়েছে, একপাক্ষিক সিদ্ধান্ত নিয়ে হিউস্টনে চীনের কনস্যুলেট বন্ধ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এভাবে আন্তর্জাতিক আইন এবং আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ভাঙা হয়েছে। খবর বিবিসির।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ‘চীন এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চলমান পরিস্থিতি বেইজিং কখনওই চায়নি। এই দায় যুক্তরাষ্ট্রের। আমরা আরও একবার অনুরোধ করব, তারা যাতে তাদের সিদ্ধান্ত ফিরিয়ে নেয়। তাহলেই দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক স্বাভাবিক হবে।’ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিং টুইটারে লিখেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র হিউস্টনে চীনা কনস্যুলেট বন্ধের যে একপাক্ষিক সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, তারই যোগ্য এবং বৈধ জবাব দেওচীনের দক্ষিণ–পশ্চিমে সিচুয়ান প্রদেশ। তার রাজধানী চেংদু কূটনৈতিকভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ স্থান। এখানে বসে চীনের একটি বড় অংশে চোখ রাখা যায়। তাছাড়া স্বায়ত্তশাসিত তিব্বতীয় অঞ্চলেও নজর রাখা যায়। এই চেংদুতেই ২০১২ সালে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন চংকিং পুলিশ প্রধান ওয়াং লিজুন। যার জেরে কমিউনিস্ট পার্টির শীর্ষ নেতা বো জিলাই ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন।