ভাঙ্গুড়া-নওগা সড়কেরপার কেটে ঘর নির্মাণের অভিযোগ

দৈনিক নতুন বিশ্ববার্তা অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:১৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২০

ভাঙ্গুড়া(পাবনা)প্রতিনিধি ॥ পাবনার ভাঙ্গুড়ায় ১৩০ কোটি টাকার ব্যয়ে নির্মাণাধীন সড়কের পার কেটে দখল করে দোকান নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে সহকারী শিক্ষা অফিসার ও অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে। উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের পাটুল গ্রামের পাটুল বাজারে ভাঙ্গুড়া-নওগাঁ সড়কে এ ঘটনা ঘটে। দখলকারি আয়নুল হক পার্শ্ববর্তী ফরিদপুর উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার। অপর আয়নুল পাটুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ও পাটুল হাট কমিটির সভাপতি। তারা একই গ্রামের বাসিন্দা। বুধবার সন্ধ্যায় সরেজমিন পাটুল বাজারে গিয়ে দেখা যায়, পাটুল বাজারের ভাঙ্গুড়া-নওগাঁ সড়কের পশ্চিম পাশে পাশাপাশি দুটি দোকান ঘর নির্মাণের কাজ চলছে। সেখানে সড়কের ধারে প্রায় ৩০ ফুট পর্যন্ত ৪ ফুট গর্ত করে মাটি কেটে কিছু অংশে ইটের গাঁথুনি করা হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চলন বিলাঞ্চলের বিলপাড়ের মানুষেদের জন্য যাতায়াতের সুবিধার ভাঙ্গুড়া-নওগা সড়কের জন্য পাবনা-৩ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ মকবুল হোসেনের অনুরোধে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ প্রকল্প ১শত ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে এই সড়কটি নির্মাণ করা হয়। সড়কটির ফলে ভাঙ্গুড়ার খানমরিচ ইউনিয়ন ও পার্শ্ববর্তী তাড়াশ উপজেলা বাসীদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পাটুল বাজারের একাধিক দোকানদার বলেন, আমরা প্রাথমিক পর্যায়ে বাধা দিয়েছি। কিন্তু তারা আমাদের কথা না শুনে আবার ঘর নির্মাণ কাজ করছে। জানতে চাইলে রাস্তা দখলকারি শিক্ষা কর্মকর্তা আয়নুল হক বলেন, সড়কের পাশে জায়গা ফাঁকা ছিল তাই একটি দোকার ঘর নির্মাণ করছি। রাস্তা দখলকারি অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক ও পাটুল বাজার কমিটির সভাপতি আয়নুল মাষ্টার বলেন,ঘর নিমাণের কাজ উপজেলা চেয়ারম্যাণ বাধা দেওয়ার পর এখন বন্ধ আছে। উপজেলা চেয়ারম্যান বাকী বিল্লাহ বলেন,জনগণের চলাচলের রাস্তা কাউকে দখল করতে দেওয়া হবে না। রাস্তা দখল করে দোকান নির্মাণ কাজ বন্ধ করে করে দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশরাফুজ্জামান বলেন,রাস্তা দখল করে ঘর নির্মাণের বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।