চাটমোহর-বামনগ্রাম সড়ক এখন মরণফাঁদ

দৈনিক নতুন বিশ্ববার্তা অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:২০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

চাটমোহর সংবাদদাতা
পাবনার চাটমোহরের মথুরাপুর শাজাহান মোড় হতে-ডিবিগ্রামের বামনগ্রাম পর্যন্ত গ্রামীন সড়কটি এখন চলাচলের জন্য মরণফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই সড়কটিতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রয়োজনের তাগিদে প্রতিদিন চলাচল করছেন শত শত মানুষ।
এলাকার জনপ্রতিনিধি ও ভুক্তভোগীরা জানান,এলজিইডির এই সড়কটি দীর্ঘদিন সংস্কার করা হয়না। বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্তের। রেললাইনের পাশের রাস্তার বেহাল দশা।
উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের শাজাহান মোড় হতে ডিবিগ্রাম ইউনিয়নের বামনগ্রাম বাজার পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার গ্রামীণ পাকা সড়কটি এখন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। গ্রামীণ এই সড়কটি জনবহুল এবং গুরুত্বপূর্ণ। এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন অসংখ্য যানবাহনসহ সাধারণ মানুষ চলাচল করে। সড়কটির ভেঙ্গে পড়ায় মাঝে মধ্যেই ঘটছে দূর্ঘটনা। যে কোনো সময় বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।
সড়কটি বিভিন্ন স্থানে ভেঙে ছোট-বড় অসংখ্য খাদের সৃষ্টি হয়েছে। কৃষি নির্ভরশীল ওই এলাকার উৎপাদিত সকল ফসলাদি বাজারজাত করতে একমাত্র এই সড়কটিই ব্যবহার করা হয়। উপজেলা সদরের সাথে অন্ততঃ ১০টি গ্রামের যোগাযোগের সড়কটিতে অসুস্থ রোগীসহ সবাইকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।
এছাড়া সড়কটির মাঝে ছোট ছোট কয়েকটি মোড়সহ প্রায় ১০টি স্থানে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। ফলে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীর।
ডিবিগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ নবীর উদ্দিন মোল্লা বলেন,গত সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় ওই সড়কটির সার্বিক বিষয়ে উপস্থাপন করেছেন। তিনি দ্রুত সড়কটি সংস্কারের প্রস্তাব রাখেন বলে জানা গেছে। ইউপি চেয়ারম্যান বলেন,আমি বারবার সড়কটি সংস্কারের জন্য দাবি জানিয়েছি। শুনেছি এলজিইডি সড়কটি সংস্কারের প্রস্তাবনা পাঠিয়েছে। কিন্তু কোন অগ্রগতি দেখছি না। এলাকাবাসী দ্রুত সড়কটি সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী রাজু আহমেদ জানান,সড়কটি সংস্কারের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে।