পাবনায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের প্রতিবাদে মৎস্যজীবীদের সংবাদ সম্মেলন

দৈনিক নতুন বিশ্ববার্তা অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৪০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

পিপ : পাবনার চাটমোহর উপজেলার পাচুরিয়া গ্রামের মৎস্যজীবীরা স্থানীয় শাহিন আলমের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে।
বুধবার পাবনা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পাচুরিয়া গ্রামের মৎস্যজীবী রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন চিকনাই নদী থেকে একটি ছোট কেনেল বা জোলা আছে পাচুরিয়া মৌজায়। সেই জোলায় স্থানীয় জনগণের মালিকানাধীন সম্পত্তিও রয়েছে। পাচুরিয়া গ্রামবাসীর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিবছর স্থানীয় মৎস্যজীবীদের মধ্যে লিজ দিয়ে আয়কৃত টাকা স্থানীয় ৩ টি কওমি মাদ্র্সাা, ৫ টি জামে মসজিদ, ১ টি গোরস্থান ও টি ঈদগা ময়দানের উন্নয়নে ব্যয় করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, চাটমোহর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইকতেখারুল ইসলাম এলাকায় কোনো নোটিশ বা প্রচার না করে জোলাটি খাস কালেকশনের নামে মাত্র ৪০ হাজার টাকায় শাহিন আলমের নিকট মৌখিকভাবে ইজারা দিয়েছেন। যা প্রকৃত মূল্য থেকে অনেক কম এবং সরকারি নীতিমালা বহির্ভূত। এছাড়া যেখানে চলতি বর্ষা মৌসুমে কোন মাছ ধরা হয়নি, সেখানে কিভাবে এবং কাদের কাছ থেকে খাস কালেকশনের নামে টাকা আদায় করা হয় তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তিনি আরো জানান স্থানীয় শাহিন আলম একজন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী। সে নিরীহ মৎস্যজীবীদের ভয়ভীতি ও জীবননাশের হুমকি প্রদান করছে। জোলায় স্থাপিত মৎস্যজীবীদের অনেক টাকা মূল্যের জাল কেটে নষ্ট করেছে। শাহিন আলমের নেতৃত্বে এলাকায় সন্ত্রসীরা মহড়া দিচ্ছে। যে কোন মুহূর্তে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটতে পারে। বিষয়টি পাবনার জেলা প্রশাসক, চাটমোহর উপজ্লো নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা চেয়ারম্যান এবং সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) জানানো হয়েছে। কিন্তু কোনো শুরাহা হয়নি।
সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয় একাধিকবার চাটমোহর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর সাথে দেখা করার চেষ্টা করলেও সাক্ষাৎ করতে পারেননি মৎস্যজীবীরা। সংবাদ সম্মেলনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মৎস্যজীবীরা।